রাকিবুল ইসলাম রাকিবকে আহ্বায়ক ও মো. আমানউল্লাহ আমানকে সদস্য সচিব করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রদলের ৯১ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে ২৫ জনকে যুগ্ম আহ্বায়ক ও বাকি ৬৪ জনকে সদস্য করা হয়েছে।

মঙ্গলবার ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল এ আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেন।

কমিটিকে আগামী এক মাসের মধ্যে সকল ইউনিট কমিটি গঠন করে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের কাছে জমা দেয়ার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

নবগঠিত কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক হলেন, আকতার হোসেন, নাছির উদ্দিন নাছির, জহির উদ্দিন আহমেদ, খোরশেদ আলম সোহেল, এইচ এম আবু জাফর, সোহেল রানা, শাহজাহান শাওন, ওয়ালিউর রহমান জনি, আশিকুর রহমান, সজীব মজুমদার, এজাজুল কবির রুয়েল, শরীফুল প্রধান শরিফ, কাজী সামসুল হুদা, মনিমুল ইসলাম জিসান, এস এম মাহমুদুল হাসান রনি, এনামুল হক এনাম, মাসুদুর রহমান মাসুদ, মোস্তাফিজুর রহমান, আবুল বাশার মো. হাসানুর রহমান, জসীম উদ্দিন, মিয়া মো. রাসেল, আব্দুল্লা আল মাসুদ, আরিফুল ইসলাম ও কামাল পাশা।

সদস্যরা হলেন, রোমান পাঠান, আনিসুল রহমান খন্দকার অনিক, তরিকুল ইসলাম তরিক, এস এম দিদারুল ইসলাম, নূরে আলম জিকু, গণেশ চন্দ্র রায় সাহস, আবদুল জলিল আমিনুল, মো. আশরাফুল, মেরাজ হোসেন মিরাজ মো. মাসুম বিল্লাহ, মোহাম্মদ আলী, রিয়াজ আনোয়ার হোসাইন, আসাদুজ্জামান রিংকু, মাসুম বিল্লাহ, মো. রাসেল মিয়া গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া, মওদুদ আহমেদ মঈন, আফজাল হোসেন বাদশা, তারেক হাসান মামুন, বায়জিদ হাসান, আবদুল্লাহ আল রিয়াদ, ইব্রাহীম খলিল, নাহিদুজ্জামান শিপন, গাজী সাদ্দাম হোসেন, জাহিদ হাসান শাকিল, আবদুর রহিম রনি, মিনহাজ আমমেদ, প্রিন্স নাসির উদ্দিন শাওন, কাওছার আলম, রাসেল, রাজু আহমেদ, সাইদুল ইসলাম, মো. ফিরোজ আলম, মাহমুদ কাজল, আবু হান্নান তালুকদার, সুপ্রিয় শান্ত, মির্জা ফয়সাল, নাজমুল সাকিব, মনিরুজ্জামান মামুন, মেহেদী হাসান রাজা, সোহেল রানা, ওমর ফারুক মামুন, কাইয়ুম-উল-হাসান, হাবিব আল রাকিব, আমানউল্লাহ আমান, এরশাদ মাহমুদ, মানসুরা আলম, মোসাদ্দেক হোসেন সৌরভ, নূর আলম ভূইয়া ইমন, মাহফুজুর রহমান, তৌহিদুল ইসলাম, মাহমুদ উল্লাহ নিরব, সৈকত মোর্শেদ, মাহবুবুল আলম শাহীন, শাওন ইকবাল, বোরহান উদ্দিন খান সৈকত, কানেতা ইয়া লাম লাম, মাহতাব আমেদ জিহান, হোসাইন আহমেদ সাদ্দাম, মো. আল আমিন, কামরুল হাসান খান, জসীম খান, ইমাম আল নাসের মিশুক, ফেরদৌস আলম, বি এম কাওছার এবং মো. বজলুর রহমান বিজয়।