প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে চাঁদপুরে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং হবিগঞ্জে একটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য দু’টি পৃথক আইনের খসড়াকে মন্ত্রিসভা চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে।

0
15

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে চাঁদপুরে একটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এবং হবিগঞ্জে একটি কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার জন্য দু’টি পৃথক আইনের খসড়াকে মন্ত্রিসভা চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে।

আজ বিকেলে সচিবালয়ে গণমাধ্যমকে ব্রিফিংয়ের সময় মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, খসড়াগুলো হচ্ছে- ‘চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০১৯’ এবং ‘হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০১৯’। তিনি বলেন, আজ সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও ‘মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড আইন-২০১৯” এর খসড়াও নীতিগতভাবে অনুমোদন করেছে।

আনোয়ারুল বলেন, এই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অন্য যে কোন বিশ্ববিদ্যালয়ের মতেই হবে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কার্যক্রম শুরু করার সাথে-সাথে বাংলাদেশে ৪৮টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় হবে। রাষ্ট্রপতি বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর হবেন এবং একটি সিন্ডিকেট গঠন করা হবে। আইন অনুসারে উপাচার্য, উপ-উপাচার্য ও ট্রেজারারকেও নিয়োগ দেয়া হবে। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো এখানে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে একজন উপাচার্য, উপ-উপাচার্য, রেজিস্ট্রার, কোষাধ্যক্ষ, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক, সিন্ডিকেট এবং একাডেমিক কাউন্সিলও থাকবে।

‘মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড আইন-২০১৯’ এর খসড়ার অনুমোদনের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘মন্ত্রিসভা ১৯৮৮ সালের বিদ্যমান মাদ্রাসা শিক্ষা অধ্যাদেশের সাথে সামঞ্জস্য রেখে সময়সাপেক্ষে কিছু সংশোধন করে খসড়া আইনের অনুমোদন দিয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের আদেশ, যা ব্রিটিশ আমলের আইনকে সমর্থন করেছিল এবং সেগুলি আপডেট করা এবং বাংলা ভাষায় অনুবাদ করার নির্দেশ দিয়েছে।

আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় কনস্যুলেট জেনারেলের অফিস স্থাপনের প্রস্তাবও মন্ত্রিসভা অনুমোদন করেছে। তিনি বলেন, নতুন কনস্যুলেট অফিস স্থাপন করা হলে উভয় দেশের কূটনৈতিক স্বার্থ রক্ষার পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের সাথে বাংলাদেশের অংশীদারিত্ব আরো জোরদার হবে।

এছাড়াও, নিউইয়র্কের বিদ্যমান দু’টি কনস্যুলেট অফিস এবং ওয়াশিংটনের দূতাবাস ছাড়াও ফ্লোরিডায় বসবাসরত ৪০ হাজারেরও বেশি প্রবাসী বাংলাদেশীদের পরিষেবা দিতে এই কনস্যুলেট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব আরও জানান, কনস্যুলেট জেনারেল এই অফিস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে বাংলাদেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে, কারণ বেশিরভাগ দেশের কনস্যুলেট অফিস ওখানে রয়েছে।

এছাড়া, গত ১৬ থেকে ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত দুবাই এয়ার শো-২০১৯ এ প্রধানমন্ত্রীর সফর সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিত করা হয়।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আবারো আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় এবং এই বছরের মার্কিন ভিত্তিক ব্যবসায়িক ম্যাগাজিন ফোর্বস বিশ্বের ১০০ ক্ষমতাবান নারীর তালিকার ২৯তম স্থান অর্জন করায় মন্ত্রিসভা আজ তাঁকে স্বাগত জানিয়েছে।

এছাড়াও, বিশ্বের বৃহত্তম বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের প্রতিষ্ঠাতা স্যার ফজলে হাসান আবেদ, সাবেক প্রধান বিচারপতি মাহমুদুল আমিন চৌধুরী এবং প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীনের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করেছে।
সূত্র:বাসস।