বাঁশখালীতে ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে ছিনতাইকারীরা

0
4

এনামুল হক রাশেদী,
বাঁশখালী(চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ

চট্টগ্রাম জেলার বাঁশখালী উপজেলায় ব্যবসা প্রতিষ্টান বন্ধ করে বাড়ি ফেরার পথে ছুরিকাঘাতে নির্মমভাবে হত্যা করেছে দুঃসাহসী ছিনতাইকারীরা। নির্মমভাবে নিহত ব্যবসায়ীর নাম মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম (৩৮)। ব্যবসায়ী ও ক্রেতামহলে সৎ, অমায়িক ও সর্বজনপ্রিয় নিহত নুরুল ইসলাম চাম্বল ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের তেলিপাড়া এলাকার আব্দুর রহমানের পুত্র, সে চাম্বল বাজারের স্কুলরোডের একজন পাইকারী ও খুচরা মুরগি ও ডিম ব্যবসায়ী।
১৬ মার্চ’২১ ইং মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০ টার সময় উপজেলার প্রধান সড়ক থেকে ২/৩শ গজ পুর্বপাশে চাম্বল উচ্চ বিদ্যালয় রোডে নৃশংস এ হত্যকান্ড সংঘঠিত হয়। রাতের প্রথম ভাগে জনকোলাহলের মধ্যে এমন নির্মম হত্যাকান্ড জনমনে চরম ক্ষোভের সঞ্চার করেছে।
স্থানীয় ও থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) রাতে চাম্বল বাজার থেকে নিজের দোকান বন্ধ করে প্রতিদিনের মতো পায়ে হেঁটে নিজ বাড়িতে যাওয়ার পথে চাম্বল উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন সড়কে পূর্ব থেকে উৎপেতে থাকা ছিন্তাইকারীরা তার গতিরোধ করে অতর্কিত হামলা চালায়। এক পর্যায়ে হত্যাকারী ছিনতাইকারীরা তার বুকে ছুরিকাঘাত করে হাতে থাকা নগদ প্রায় দেড় লক্ষাধিক টাকা ছিনতাই করে পুর্বদিকে পালিয়ে যায় বলে জানিয়েছে এলাকাবাসী। ছিনতাকারীদের অতর্কিত হামলার পর আহত ব্যবসায়ী নুরুল ইসলামের আর্তচিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসার আগেই ছিনতাইকারীরা তার বুকে ছুরি ঢুকিয়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়রা গুরুতর আহত নুরুল ইসলামকে উদ্ধার করে দ্রুত বাঁশখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলেও কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।’
বাঁশখালী থানা পুলিশ অফিসার ইনচার্জ সফীউল কবির জানান, ‘প্রতিদিনকার মতো ব্যবসায় কাজ সম্পন্ন করে নুরুল ইসলাম বাড়ী ফেরার পথে ছিন্তাইকারীরা ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে তার গতিরোধ করে ছুরিকাঘাত করে। ঘটনাস্থল থেকে আহতবস্থায় তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম হত্যাকান্ডে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান তিনি।’
বাঁশখালীর চাম্বলে নির্মমভাবে ব্যবসায়ী হত্যাকান্ডের ঘটনা সোস্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে মুহুরাতেই সমগ্র উপজেলা জুড়ে ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের পাশাপাশি প্রশাসনিক দুর্বল তৎপরতা নিয়ে প্রচন্ড ক্ষোভের সঞ্চার পরিলক্ষিত হচ্ছে।
এলাকার লোকজন জানায়, গত কয়েকদিন আগেও তিনি রাতে বাড়িতে যাওয়ার সময় একদল ডাকাত তার পিছু নিয়েছিল, তখন সে দৌঁড়ে বাড়িতে চলে যায়। সে ঘটনা নুরুল ইসলাম পরিবারের সদস্যদের জানালেও ভয়ে এলাকার লোকজনকে কিছু বলেনি। এলাকার লোকজন জানায়, নুরুল ইসলাম একজন সৎ ব্যবসায়ী ছিলেন,কোন দিন কারো সাথে কথা কাটাকাটিও হয় নি তার সাথে। এবং তার সাথে কোন ধরনের শত্রুতাও ছিলনা কারো সাথে। শুধুমাত্র কিছু টাকার জন্য একজন তরুন ব্যবসায়ীকে এমন নির্মমভাবে হত্যা করে ফেলবে তা মেনে নেওয়া যায়না। তারা অবিলম্বে হত্যাকারীদের গ্রেফতার পুর্বক দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবীতে প্রশাসনের আন্তরিক হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here