সেই মা-ছেলের সঙ্গে দেখা করলেন মুশফিক, উপহার দিলেন জার্সি-গ্লাভস
রাজধানীর পল্টন মাঠে গত শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) মা-ছেলের ক্রিকেট খেলার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। সেদিন সতীর্থরা মাঠে আসতে দেরি করায় ছেলেকে সঙ্গ দিতে বোরকা পরেই ব্যাট হাতে নেমে পড়েন মা ঝর্ণা আক্তার। পরে জানা যায় ছেলেটির নাম ইয়ামিন সিনান ও আরামবাগের একটি মাদ্রাসার ছাত্র। পড়াশোনার পাশাপাশি একটি ক্রিকেট একডেমিতে অনুশীলন করা ছোট্ট ইয়ামিনের প্রিয় ক্রিকেটার মুশফিকুর রহীম।
সেই প্রিয় ক্রিকেটার টাইগার উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান আজ বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বনানীর একটি মাঠে দেখা করেছেন ইয়ামিনের সঙ্গে। নিজের স্বাক্ষরিত জার্সি ও গ্লাভস দিয়েছেন তার ছোট্ট ভক্ত ইয়ামিনকে। স্বপ্নের ক্রিকেটারের সাক্ষাত পেয়ে আপ্লুত ইয়ামিন বলে, মুশফিক ভাইয়ের সঙ্গে দেখা করার স্বপ্ন ছিল। আল্লাহ আমার স্বপ্ন পূরণ করেছে।
সংবাদমাধ্যমে মুশফিক জানতে পারেন ইয়ামিনের প্রিয় ক্রিকেটার তিনি। তখনই সিদ্ধান্ত নেন ইয়ামিনের সঙ্গে।
মুশফিক বলেন, আমার খুবই ইচ্ছা ছিল ইয়ামিনের সঙ্গে দেখা করার। এটা ভেবে ভালো লাগে যে, ইয়ামিনের মত অনেকে আমাদের ফলো করে। বোরকা পরে ব্যাট হাতে ছেলের সঙ্গে ক্রিকেট খেলতে নেমে পড়ায় ঝর্ণা আক্তারকে কটু কথা শুনতে হয়েছে। শত বাধা-বিপত্তি এড়িয়ে ঝর্ণা আক্তারের এই প্রচেষ্টায় মুগ্ধ হয়েছি। আমার সবচেয়ে ভালো লেগেছে, এত প্রতিবন্ধকতার পরেও ইয়ামিনের মা ছেলের যে স্বপ্ন পূরণের আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছেন।
ইয়ামিনের সঙ্গে মুশফিকুর রহীমকে বেশ কিছুক্ষণ কথা বলতেও দেখা গেছে। সেখানে ইয়ামিন জানতে চান, আপনার মতো ক্রিকেটার হতে হলে কি করতে হবে?
প্রশ্নের উত্তরে মুশফিক ইয়ামিনের চোখে বড় ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন এঁকে দিয়ে ও উৎসাহ যুগিয়ে বলেন, আমার মত নয়; তুমি আমার চেয়ে বড় ক্রিকেটার হবে। বড় ক্রিকেটার হতে হলে তুমি এখন যে পরিশ্রম করে যাচ্ছ সেটা চালিয়ে যাও। অবশ্যই তোমার মধ্যে বড় ক্রিকেটার হওয়ার ইচ্ছা থাকতে হবে। তোমার মত বয়সে আমি এত ভাল খেলতাম না।
সংক্ষিপ্ত সময়ের সেই সাক্ষাতে মুশফিকুর রহীম কথা বলেছেন ইয়ামিনের মা ঝর্ণা আক্তারের সঙ্গেও। তার কন্ঠে ঝরল মুশফিকের প্রতি ভালবাসা আর কৃতজ্ঞতা। তিনি বলেন, মুশফিকও আমার ছেলের মতই। কল্পনাতেও ভাবিনি, এক ছেলের মাধ্যমে আরেক ছেলের দেখা পাব ও মুশফিকের মত একজন মানুষ নিজে এসে দেখা করবেন।