কুমিল্লায় জবাই করে স্ত্রী ও শাশুড়ীকে হত্যা

0
25

এ আর. রুহুল আমিন হাজারী
কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ

কুমিল্লা বুড়িচংয়ের মোকাম ইউনিয়নের হালগাও গ্রামে নিজের ঘরে স্ত্রী ও শাশুড়ী কে জবাই করার হত্যার ঘটনা ঘটছে। মঙ্গলবার বিকেল আনুমানি সারে ৫টায় ওই হত্যাকান্ডের এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়দের সহায়তায় হত্যাকারী লোকমান কে আটক করেছে বুড়িচং থানা পুলিশ। লোকমান (৩০) হালগাও গ্রামের মৃত আলম মিয়ার ছেলে। প্রাথমিকভাবে হত্যাকান্ডের সঠিক কোন কারন জানা যায়নি।

স্থানীয় প্রতিবেশী ও উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের বরাত দিয়ে জানা যায়,
প্রায় ৮/৯ বছর আগে সদর উপজেলার কালির বাজার ইউপির
বল্লাপপুর গ্রামের শাহ আলমের কন্যা ফারজানার সাথে বিয়ে হয় লোকমানের। ঘটনার দিন বিকেল ৫টায় শাশুড়ী বানু বিবি (৫৫) কে ফোন করে নিজের বাড়িতে আনেন। স্ত্রী ফারজানার (২৫)র বিরুদ্ধে পরোকিয়ার অভিযোগ করে বাকবিতন্ডায় লিপ্ত হয়। স্ত্রী ও শাশুড়ীর সাথে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে শাশুড়ী ও স্ত্রী কে নিজ ঘরেই জবাই করে হত্যা করে। হত্যার পর ঘরের দরজায় ছুরি হাতে নিয়েই বসে থাকে লোকমান।
ওই অবস্থায় তাকে অস্বাভাবিক দেখা গেলে ভয়ে কেউ কিছু জিগেস করার সাহস পাচ্ছিলোনা বলেও জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা।
পরে প্রতিবেশীরা ঘরের জানালা দিয়ে রক্তাক্ত লাশ দেখতে পেয়ে বুড়িচং থানা পুলিশকে খবর দিলে তাৎক্ষণিক দেবপুর ফাঁড়ি পুলিশ ও বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক সহ অন্যান্য সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে আসামিকে আটক করে। এসময় তার পাশে পড়ে থাকা ছুড়িটিও উদ্ধার করা হয়। দাম্পত্য জীবনে লোকমানের এক মেয়ে ও একটি ছেলে রয়েছে।

মোকাম ইউনিয়ন পরিষদের ৬নং ওয়ার্ডের সদস্য রফিক মিয়া জানান বিকেল ৫টায় ঘটনা জানা-জানি হলে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসেন।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে নয় টায় বুড়িচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক’র নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন- লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন উদ্ধার প্রক্রিয়া পর লাশ মর্গে রাখা হয়েছে এবং ঘটনার রহস্য উদঘাটন চলছে, তবে হত্যা কান্ডের ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে বলে তিনি জানান ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here