গত শনিবার দেশ রূপান্তরে প্রকাশিত ‘পুলিশে বিভাগীয় পদোন্নতিতে জ্যেষ্ঠতা লঙ্ঘনে ক্ষোভ’ শীর্ষক সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে পুলিশ সদর দপ্তর। গতকাল মঙ্গলবার সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া) মো. সোহেল রানা স্বাক্ষরিত এক প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, গত ১২ অক্টোবর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ হতে জারিকৃত প্রজ্ঞাপনে স্ব স্ব ক্যাটাগরির জন্য নির্ধারিত কোটার বিপরীতে নিরস্ত্র, সশস্ত্র এবং শহর ও যানবাহন এ তিন শ্রেণির ইন্সপেক্টর হতে এএসপি পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে নির্ধারিত কোটা সুনির্দিষ্টভাবে বজায় রাখা হয়েছে। এখানে পুলিশ ইন্সপেক্টরের এক শ্রেণির জন্য নির্ধারিত প্রাপ্য কোটায় অন্য শ্রেণিকে পদোন্নতি দেওয়ার সুযোগ নেই।

অধিকন্তু পুলিশ ইন্সপেক্টরের কোনো শ্রেণির কোটায় নির্ধারিত প্রাপ্য অংশেও কোনো জ্যেষ্ঠতা ক্ষুণ হয়নি। যেহেতু পুলিশ ইন্সপেক্টরের জন্য নির্ধারিত কোটা যথাযথভাবে অনুসরণপূর্বক পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে সেহেতু উক্ত পদোন্নতি দেওয়ার ক্ষেত্রে জ্যেষ্ঠতা লঙ্ঘনের আনীত অভিযোগটি ভিত্তিহীন।
প্রতিবেদকের বক্তব্য : পদোন্নতিবঞ্চিত বেশ কয়েকজন নিরস্ত্র পরিদর্শকের লিখিত ও মৌখিক অভিযোগ থেকে প্রতিবেদনটি তৈরি করা হয়েছে। তাদের দাবি পরিদর্শকদের শ্রেণিবিন্যাস করা হয় ২০১৫ সালে। ২০১২ সালে পিএলভুক্তদের পদোন্নতি কার্যকর হওয়ার পর ২০১৬ সাল থেকে কোটা বাস্তবায়ন করতে হবে।