খুনি রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফেরানোর দাবীতে নিউইয়র্কে মানববন্ধনে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক,নিউইয়র্ক আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব আবদুল কাদের মিয়া।

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখার উদ্দ্যগে আয়োজিত ২১ শে আগষ্ট গ্রেণেড হামলার প্রতিবাদে জ্যাকসন হাইটসে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক,নিউইয়র্ক আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি,সন্দ্বীপ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সদস্য,সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আলহাজ্ব আবদুল কাদের মিয়া,আশ্রাফ আলী খান লিটন,সাংবাদিক লাভলু আনসার,রাশেদ আহমদ,মুক্তিযোদ্ধা রেজাউল বারী,আবুল বাশার চুন্নু,নাজিম উদ্দিন,এটিএম মাসুদ সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবদুল কাদের মিয়া বলেন-
আমেকিায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত খুনী মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফিরিয়ে দিতে হবে।
দু:স্বপ্নের কাল অধ্যায় ২০০৪ সালের ২১ শে আগস্ট বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে বর্বরোচিত গ্রেনেড হামলায় নিহত শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা।
২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট ঢাকায় আওয়ামী লীগের এক জনসভায় গ্রেনেড হামলা করে জঙ্গি রাজনীতির ধারক ও বাহক বিএনপি-জামাত, যে হামলায় ২৪ জন নিহত হলেও অল্পের জন্য বেঁচে যান তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে আওয়ামীলীগ সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ হাসিনা সহ প্রায় ৩০০ লোক আহত হয়। এই হামলায় নিহত হন বাংলাদেশের ১৯তম রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের স্ত্রী আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নারী নেত্রী মিসেস আইভী রহমান।

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র শাখার সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব আবদুল কাদের মিয়া বলেন, ৭৫এর ১৫ ই আগস্ট এর হত্যাকাণ্ডের কুশীলবরাই ২০০৪ সালের ২১আগস্ট গ্রেনেড হামলার মতো ইতিহাসের বর্বরোচিত হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলার মূল টার্গেট ছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আল্লাহর রহমতে সেদিন প্রধানমন্ত্রী প্রাণে বেঁচে ছিলেন। এই ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা ও হত্যাকাণ্ডের পেছনে খালেদা-তারেকের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ইন্দন রয়েছে। ইতিহাসের ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় আইভি রহমানসহ ২৪ জন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মী প্রাণ হারিয়েছিলেন।
এই ষড়যন্ত্রকারীরা এখনো নানান ধরনের ষড়যন্ত্র দেশের মাটিতে এবং বিদেশে করছে উল্লেখ করে
নিউইয়র্ক আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি,বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন যুক্তরাষ্ট্র সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের মিয়া বলেন এই ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে নেতাকর্মীদের সোচ্চার থাকতে হবে। সতর্ক থাকতে হবে।