প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার ঘোষিত টানা ছুটির কারণে লকডাউন হয়ে থাকা চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলায় উপার্জনহীন শ্রমজীবী নিন্ম আয়ের মানুষের মাঝে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছে আওয়ামীলী রাজনীতিবিদ, বিশিষ্ঠ সমাজ সেবক আমেরিকা প্রবাসী আবদুল কাদের মিয়া।
আবদুল কাদের মিয়া ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সন্দ্বীপের পৌরসভা বাউরিয়া থেকে শুরু করা হয় ডোর টু ডোর এ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কর্মসূচি। প্রায় সাড়ে ৩হাজার পরিবারের মাঝে প্রত্যেককে ১০কেজি করে চাল, ৩কেজি আলু, পিয়াজ, ডাল সহ মোট ১৫কেজি করে নিত্যপ্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়।

বিগত ২০ বছর ধরে সন্দ্বীপ উপজেলায় মসজিদ, মাদ্রাসা নির্মান, গরীব শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার ভরনপোষণ, গরীব পরিবারের মেয়েদের বিয়েতে আর্থিক সাহয্য প্রদান, এতিম অসহায়দের মাঝে সাহায্য, শিক্ষা ও স্বাস্থ্য অবকাঠামো উন্নয়ন সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে আর্থিক সহায়তা দিয়ে আসছে আবদুল কাদের মিয়া ফাউন্ডেশন। উল্লেখযোগ্য যে বিগত ২০১৭ সালে লাল বোট ডুবিতে ১৮ জনের মৃত্যুতে শিক্ষক পরিবার যারা ছিলো সবাইকে নগদে ৫০হাজার টাকা করে এবং অন্যদের কে আর্থিক অনুদান প্রদান করেন। পবিত্র রমজান মাসে সন্দ্বীপ উপজেলায় দশ হাজার পরিবারে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য ও ইফতার সামগ্রী সহ গরীব দের মাঝে আর্থিক সাহায্য করে থাকেন।
আমেরিকা থেকে আলহাজ্ব আবদুল কাদের মিয়া বলেন, সাম্প্রতিক কালের প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের কারনে পুরা বিশ্ব স্তব্ধ হয়ে পড়ছে। এটা একটি বৈশ্বিক সমস্যা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দুরদর্শিতার ও আগাম পদক্ষেপের কারনে বাংলাদেশ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। দেশে-বিদেশ আকাশ পথ যোগাযোগ বন্ধ থাকায় আমার প্রাণপ্রিয় সন্দ্বীপ উপজেলায় আসা সম্ভব না হলেও টেলিফোনে স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখেছি এবং ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে আবদুল কাদের ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে সন্দ্বীপ উপজেলায় ঘরে ঘরে হত দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়ার ব্যবস্থা করেছি। এটা চলমান থাকবে। সবাই পাবে ত্রান।
বিশেষ ভাবে রাস্তা ঘাটে দোকানে অযথা ঘুরাঘুরি না করে নিজ ঘরেই অবস্থান করতে সন্দ্ববাসীদের অনুরোধ জানান তিনি।