নেপালের বিপক্ষে ড্র করলেই সেমিফাইনালে পৌঁছে যাবে বাংলাদেশ। কিন্তু ম্যাচটি হেরে গেলেই পড়ে যাবে বিস্তর হিসাব-নিকাশের মধ্যে।
টানা দুই জয় নিয়ে সাফ সেমিফাইনালের খুব কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে বাংলাদেশ। আগামীকাল নেপালের বিপক্ষে ড্র করতে পারলেই সেমিফাইনাল নিশ্চিত হয়ে যাবে বাংলাদেশের। কিন্তু হেরে গেলে কী হবে, সেই প্রশ্নটা থেকেই যাচ্ছে।
দুই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে বাংলাদেশ। এক জয়ে তিন পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে নেপাল। পাকিস্তানের পয়েন্ট নেপালের সমান হলেও গোল ব্যবধানে তাদের অবস্থান তৃতীয়। টানা দুই ম্যাচ হেরে ভুটানের বিদায় এক প্রকার নিশ্চিত। প্রতিটি দলেরই ম্যাচ বাকি আছে একটি করে। ফলে এখনো শীর্ষ তিন দলের সুযোগ আছে সেমিফাইনাল খেলার।
সেমিফাইনাল নিশ্চিত করতে শনিবার গ্রুপের শেষ ম্যাচে নেপালের বিপক্ষে ন্যূনতম ড্র দরকার। তবে বাংলাদেশ যদি হেরে যায় আর পাকিস্তান যদি ভুটানকে হারিয়ে দেয় তাহলে বাংলাদেশ, নেপাল ও পাকিস্তানের পয়েন্ট হবে সমান ছয়। সে ক্ষেত্রে বিবেচ্য হবে গোল পার্থক্য। কোনো গোল হজম না করে দুই খেলায় বাংলাদেশের তিন গোল। অর্থাৎ গোল পার্থক্য প্লাস ৩। পাকিস্তান ২ গোল দিয়ে হজম করেছে সমানসংখ্যক গোল। নেপালের জালে দুবার বল গেলেও তারা দিয়েছে ৫ গোল। ফলে তাদের গোল পার্থক্য প্লাস ৩। অবশ্য পরের ম্যাচে বাংলাদেশ হেরে গেলে এবং পাকিস্তান জিতে গেলে নিয়মের মারপ্যাঁচে টানা দুই জয় নিয়েও বাদ পড়ে যেতে পারে বাংলাদেশ। তৃতীয় ম্যাচে তাই ১ পয়েন্ট পেতেই হবে জামাল ভূঁইয়ার দলকে।