ইরফান খান নাকি শিগগিরই ক্যামেরার সামনে দাঁড়াবেন। আবার চলচ্চিত্রের শুটিংয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছেন। উধম সিংয়ের বায়োপিক তৈরি করবেন পরিচালক সুজিত সরকার। ছবিতে ‘উধম সিং’য়ের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য পরিচালক আগে থেকেই ভেবে রেখেছেন ইরফান খানকে। তাঁর সঙ্গে আলোচনাও করেছেন। কিন্তু ইরফান খান হঠাৎ অসুস্থ হওয়ায় থেমে যায় সব। মুম্বাই মিরর জানিয়েছে, লন্ডনে চিকিৎসায় ভালোই সাড়া মিলেছে। বলিউডের এই অভিনেতা এখন অনেকটাই সুস্থ। হয়তো শিগগিরই তিনি ছবির শুটিং করবেন।

উধম সিংকে নিয়ে বায়োপিকের জন্য তৈরি চিত্রনাট্য পছন্দ হয়েছে ইরফান খানের। এর আগে ‘পিকু’ ছবিতে পরিচালক সুজিত সরকারের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি। তাঁদের একসঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা খুবই ভালো। এখন ছবির শুটিং শুরু করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন পরিচালক। আর ইরফান খান ছবিটির প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিপত্রে স্বাক্ষরও করেছেন।

এদিকে ইরফান খানের বর্তমান অবস্থা নিয়ে সুজিত সরকার ভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘আমার মনে হয় পুরো বিটাউন তাঁর ফিরে আসার জন্য অপেক্ষা করছে। আবার তিনি কবে কাজ শুরু করবেন, তা জানার জন্য অপেক্ষা করে আছেন তাঁর দর্শক আর শুভাকাঙ্ক্ষীরা। ইরফান একজন দক্ষ অভিনেতা। আমরা সবাই চাই, তিনি সুস্থ হয়ে আবার কাজ শুরু করুন।’

কে এই উধম সিং? তিনি ছিলেন স্বাধীনতাসংগ্রামী। ১৯১৯ সালে অমৃতসরের জালিয়ানওয়ালা বাগে গণহত্যা চালিয়েছিল ব্রিটিশ সৈন্যরা। সেই ঘটনার প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য মাইকেল ও’ডায়ারকে হত্যা করার পরিকল্পনা করেন উধম সিং। ১৯৪০ সালের ১৩ মার্চ লন্ডনের ক্যাক্সটন হলে পাঞ্জাবের সাবেক এই লেফটেন্যান্ট গভর্নরকে গুলি করেন তিনি। মাইকেল ও’ডায়ার নিহত হন। ধরা পড়ে যান উধম সিং। বিচারে তাঁকে ফাঁসি দেওয়া হয়। একই বছর ১৩ জুলাই লন্ডনের পেন্টনভিল কারাগারে তাঁর ফাঁসি কার্যকর হয়। ইতিহাসে তাঁকে ‘শহীদ-ই-আজম সরদার উধম সিং’ নামে অবিহিত করা হয়।

এবারই প্রথম বায়োপিকে মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করবেন ইরফান খান। লন্ডনে চিকিৎসার ফাঁকে অভিনয়ের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন তিনি। এ তো গেল ইরফান খানের কথা। আর পরিচালক সুজিত সরকার দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে এই বায়োপিক তৈরির স্বপ্ন দেখছেন, প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা করছেন। গত বছর পিটিআইকে এ ব্যাপারে এক সাক্ষাৎকার দেন সুজিত সরকার। সেখানে তিনি বলেন, ‘আমি এই গল্প নিয়ে ১৮-১৯ বছর ধরে কাজ করছি। যখন মুম্বাই চলে আসি, আমার প্রথম ছবিটি এই গল্প নিয়ে করব ভেবেছিলাম, কিন্তু তখন পারিনি। গল্পটি ভারতের স্বাধীনতার কয়েক বছর আগে সংঘটিত ঘটনা নিয়ে। তাই সেভাবেই ভাবতে হয়েছে।’

গত ৬ মার্চ ইরফান খান টুইটারে লিখেছেন, তিনি বিরল রোগে আক্রান্ত! এরপর ১৬ মার্চ তিনি জানান, তাঁর ‘স্নায়ুকোষে টিউমার’ হয়েছে। এই সমস্যার নাম ‘নিউরোএন্ডোক্রাইন টিউমার’। এরপর চিকিৎসার জন্য তিনি লন্ডনে যান।