ভারতের একটি আদালত ১৯৯৮ সালের হরিণ শিকার মামলায় বলিউড সুপারস্টার সালমান খানকে দোষী সাব্যস্ত করেছে।

এতে তার ছয় বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে তবে তিনি আপিল করতে পারবেন।

তবে বলিউড তারকা সাইফ আলী খান, সোনালি বান্দ্রে, নিলম ও টাবুকে খালাস দিয়েছে আদালত।কীভাবে বদলে গেল ফয়সাল ও নাজিয়ার মরদেহ?

তবে কত বছরের কারাদণ্ড হতে যাচ্ছে সালমান খানের সেটি শিগগিরই আদালত ঘোষণা করবে বলে জানা যাচ্ছে।

প্রায় বিশ বছর বয়সী পুরনো এই মামলার আদেশ দিয়েছেন যোধপুরের ডিসট্রিক্ট প্রিজাইডিং অফিসার দেবকুমার খাত্রী।

আদেশ দেয়ার সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন সাইফ আলী কান, সোনালি বান্দ্রে, নিলম ও টাবু।এ মামলায় আরও দুজন অভিযুক্ত ছিলেন -ট্রাভেল এজেন্ট দশায়ন্ত সিং ও সালমানের সহকারী দিনেশ গাউরে।

মিস্টার গাউরে অবশ্য এখনো পলাতক।

সালমান খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিলো যে তিনি ১৯৯৮ সালের ১ ও ২ অক্টোবর যোধপুরের কাছে কানকানি গ্রামে দুটি বিরল প্রজাতির হরিণ শিকার করেছেন।

সালমানসহ উল্লেখিত অভিনেতা অভিনেত্রীরা সেখানে একটি হিন্দি ছবির শুটিংয়ে গিয়েছিলেন।

৫২ বছর বয়সী সালমান আগেই এ মামলায় নিজেকে নির্দোষ দাবি করে বলেছেন হরিণ দুটি প্রাকৃতিক কারণেই মারা গেছে।