ওয়াশিংটন তার নীতিতে ‘নিষ্পত্তিমূলক পরিবর্তন’ না করা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার আরেকটি শীর্ষ বৈঠকের কোনো প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন কিম জং উনের বোন কিম ইয়ো জং।

কিম জং উন ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দুই বছর আগে প্রথম বৈঠক করেছিলেন সিঙ্গাপুরে। এরপর তারা আরও দু’বার বৈঠক করলেও উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্র ধ্বংস করার বিনিময়ে দেশটির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া নিয়ে মতবিরোধ দেখা যায়। সেই কারণে ২০১৯ সালের গোড়ার দিকে হ্যানয় শীর্ষ বৈঠক ভেঙে যায়।

চলতি সপ্তাহে ট্রাম্প বলেছেন, তার কাছে উপকারি মনে হলে তিনি কিমের সঙ্গে অবশ্যই ফের বৈঠকে বসবেন। পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, আগামী নভেম্বরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে আবারো জয়লাভের সম্ভাবনা সৃষ্টিকারী যেকোনো বিষয়কে ট্রাম্প উপকারি বলে মনে করেন।

কিন্তু কিম ইয়ো জং শুক্রবার সুস্পষ্ট ভাষায় বলেছেন, ‘এই মুহূর্তে আমেরিকার সঙ্গে আর কোনো আলোচনা নয়। এখন শীর্ষ বৈঠক অনুষ্ঠিত হলে তা সেটা শুধুমাত্র একজন ব্যক্তির (ট্রাম্পের) স্বার্থ রক্ষা করবে।’

সম্প্রতি মার্কিন প্রতিনিধির দলের সঙ্গে দক্ষিণ কোরিয়ায় তিনদিনের সফর শেষ করার একদিন পর কিম জং উনের প্রভাবশালী উপদেষ্টা হিসেবে পরিচিত তার বোন এইসব কথা বললেন। কারণ ওই সফরের সময় কিমের সঙ্গে বৈঠক করার ব্যাপারে ট্রাম্পের আগ্রহের কথা ব্যক্ত করা হয়েছিল।