শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তারের পেছনে ছিল রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র

    0
    9

    মাদকের মামলায় গত বছর শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খানকে গ্রেপ্তার করার পেছনে অনেকেই রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের গন্ধ পেয়েছিলেন। বিভিন্ন রাজনৈতিক মহল থেকে শুরু করে বলিউডের একাধিক তারকা এই ধারণার সপক্ষে নিজেদের সমর্থন প্রকাশ করেছিলেন।

    এবার সেই তালিকায় জুড়ল জনপ্রিয় মালায়ালম অভিনেতা টোভিনো থমাসের নাম। তার দাবি, ‘আরিয়ানের বিরুদ্ধে হওয়া মাদক মামলাটি গোটাটাই ছিল সাজানো এবং রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। এসব করা হয়েছিল শুধুমাত্র শাহরুখের নাম ও ভাবমূর্তি নষ্ট করার উদ্দেশ্যে।’

    বলিউড হাঙ্গামাকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই বিস্ফোরক মন্তব্য করেন নেটফ্লিক্সের সুপারহিরো ছবি ‘মিন্নাল মুরলি’র নায়ক থমাস। তিনি বলেন, ‘জেনেবুঝেই মাদককাণ্ডে ফাঁসানো হয়েছিল আরিয়ানকে। এর পেছনে রয়েছে গভীর রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র। সেটা হল শাহরুখ খানের সম্মান নষ্ট করার ষড়যন্ত্র।’

    আন্তর্জাতিক মাদক চক্রের অংশ হওয়ার অভিযোগ উঠেছিল আরিয়ান খানের বিরুদ্ধে। তবে এই অভিযোগের স্বপক্ষে কোনো তথ্যপ্রমাণ পায়নি এনসিবির বিশেষ তদন্তকারী দল। সে প্রসঙ্গে এই দক্ষিণী অভিনেতা বলেন, ‘মানুষ বুঝতে পারছেন গোটাটাই ষড়যন্ত্র ছিল। সেই জন্য তো দোষী সাব্যস্ত হননি আরিয়ান।’

    এনসিবির যে অভিযানে কোর্ডেলিয়া ক্রুজ থেকে আটক করা হয়েছিল আরিয়ানকে, সেটির মধ্যেও একাধিক অনিয়মের খোঁজ মিলেছে। মুম্বাই থেকে গোয়াগামী প্রমোদতরীতে গত ২ অক্টোবর বিকালে হানা দিয়েছিল এনসিবির যে দল, তার নেতৃত্বে ছিলেন এনসিবির মুম্বাই ইউনিটের প্রধান সমীর ওয়াংখেড়ে।

    ওইদিন কোর্ডেলিয়া ক্রুজ থেকে মাত্র ১৩ গ্রাম কোকেন, পাঁচ গ্রাম মেফেড্রোন, ২১ গ্রাম মারিজুয়ানা এবং ২২টা এমডিএমএ ক্যাপসুল উদ্ধার হয়েছিল। পাশাপাশি ছিল এক লাখ ৩৩ হাজার টাকা নগদ।

    গত ২৮ অক্টোবর বম্বে হাইকোর্ট কোর্ডেলিয়া ক্রুজ মামলার জামিনের শুনানিতে যে সব পর্যবেক্ষণের কথা জানিয়েছিল, সেই বিষয়গুলোই উঠে এসেছে সিট-এর প্রাথমিক তদন্তে। আরিয়ানের বিরুদ্ধে কোনোরকম ষড়যন্ত্রের প্রমাণ নেই, স্পষ্ট জানিয়েছে এনসিবির সূত্র।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here