জাতির জনক বঙ্গবন্ধু মুজিব মুক্ত প্রাণের প্রতিধ্বনী এবং জাতির চিরনতুন মহাকাব্য

0
9

যিনি তার সত্যিকার নেতৃত্বের মাধ্যমে জাতিকে পৌঁছে দিয়ে গেছেন স্বাধীনতার স্বর্ণ ত্বোরণে আজ সেই মহান বিশ্ব নেতার শুভ জন্মদিন।এই দিনটি জাতীয় শিশু দিবস হিসেবে পালিত হয়ে আসছে এই দিনে টুঙ্গিপাড়ায় এক আগুনের ফুলকি জন্ম হয়েছিল।সে ফুলকির ছোঁয়ায় রাজনৈতিক প্রবাহে রূপান্তরিত হয়ে সারা বিশ্বের নির্যাতিত মানুষের অকৃত্রিম প্রতিভূ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু।
একটি জাতির উত্থান, বিকাশ,উন্নয়ন এবং অগ্রযাত্রা সবকিছুর জন্য সবার আগে প্রয়োজন একজন সত্যিকারের নেতা, বিচক্ষণ নেতা,স্বপ্নচারী মানুষ। এই সত্য বাংলাদেশের থেকে ভালো আর কে বুঝবে?বাংলাদেশ এখন স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন করছে।এই প্রিয় মাতৃভূমি, আমাদের প্রাণের জাতীয় সংগীত, আমাদের রক্তে স্নাত পবিত্র পতাকা, বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ সংবিধান সেসব কিছুই আমরা পেয়েছি এক নেতার দীর্ঘ সংগ্রাম সঠিক নেতৃত্ব এবং অসীম পরিশ্রমের জন্য। তিনি আমাদের জাতির পিতা, বিশ্ব নেতা,বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। কিন্তু যে স্বপ্ন বুকে ধারণ করে জাতির পিতা এদেশের মুক্তিসংগ্রামে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সেই স্বপ্ন তিনি পূরণ করে যেতে পারেননি। তার জন্য জাতিকে শ্রেষ্ঠ উপহার দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, রাষ্ট্রনায়ক, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে।বিশ্ব নেত্রী শেখ হাসিনা রাজনৈতিক তৎপরতা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের স্বপ্নপূরণে এবং জাতির জনকের সোনার বাংলা জাতিকে উপহার দেয়ার জন্য নিরলস প্রচেষ্টা করে যাচ্ছেন তা সত্যি অভুতপূর্ব। এর সফলতা আসবেই। পরম করুণাময়ের কাছে একমাত্র প্রার্থনা বিশ্বনেত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘজীবী হোক। জয় বাংলা।জয় বঙ্গবন্ধু। মুজিব শতবার্ষিকী সফল হোক।
লেখা
এম.এ হান্নান চৌধুরী মন্জু

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here