ভাড়া না থাকায় বাস থেকে প্রতিবন্ধী নারীকে ছুড়ে ফেলা হয় রাস্তায়!

0
4

ডেস্ক নিউজ: রাজধানীর কেরানীগঞ্জের একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ভিডিওতে দেখা মেলে ভয়াবহ চিত্র। বাস থেকে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে এক নারীকে। আর ঘটনাটি ঘটে আন্তর্জাতিক নারী দিবসের আগের দিন।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রবিবার সকালে গুলিস্তান-নবাবগঞ্জ রুটে চলাচল করা এন মল্লিক কম্পানির ঢাকা মেট্রো ব-১৩-১৫২১ গাড়িটিতে উঠেছিলেন বাক্‌প্রতিবন্ধী এক নারী।

কিছুক্ষণ পর বাসের হেল্পার তার কাছে ভাড়া চাইতে গেলে ওই নারী ভাড়া নেই বলে জানায়। আর তাতেই ক্ষুদ্ধ হয়ে প্রতিবন্ধী ওই নারীকে চলন্ত বাস থেকে ছুড়ে ফেলে দিয়েছে ‘এন মল্লিক’ বাসটির হেল্পার।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, বোরকা পরা এক বাক্‌প্রতিবন্ধী নারীকে গাড়ি থেকে মাটিতে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হয়। মাটিতে পরে প্রচণ্ড ব্যথায় সে গড়াগড়ি খায় এবং গোঙ্গাচ্ছিলেন। সাথে সাথে উপস্থিত স্থানীয়রা তাকে রাস্তা থেকে তোলেন।

বাকপ্রতিবন্ধী হওয়ায় ওই নারী টাইলসের ওপর লিখে তাকে ছুড়ে ফেলে দেওয়ার কারণ সম্পর্কে উপস্থিত জনতাকে জানান।

ওই নারী লিখেছেন, ‘এন মল্লিক কোনাখোলা থেকে উঠাইছে। ভাড়া নাই। এন মল্লিক কোনো দিনও আমার থেকে ভাড়া নেয় না। এরা ভাড়া চায়। দিতে না পারায় এমুন ব্যবহার। এন মল্লিকের সবাই আমাকে চেনে। ও মনে হয় চিনে নাই। তাই বুজাবার চেষ্টা করছিলাম।’

ঘটনা শুনে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে জনতা। একজন প্রতিবন্ধীর সঙ্গে এমন আচরণে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার এবং বিচার দাবি করেছেন স্থানীয় জনতা।

জানা গেছে, নারীটিকে ছুড়ে ফেলা ‘এন মল্লিক’ কম্পানির বাসের হেল্পারের নাম হাসান (২২)। তার বাড়ি নবাবগঞ্জের জয়কৃষ্ণ এলাকায়। বাসটির চালক ছিলেন সবুজ মিয়া (৪০)।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here