ডেস্ক নিউজ : কমিটিতে নাম থাকা কোন সুবিধা নয় বলে মন্তব্য করেছেন যুবলীগের সদ্য গঠিত কমিটির আইন বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার সৈয়দ সাইয়েদুল হক সুমন।

শনিবার (১৪ নভেম্বর) সম্মেলনের প্রায় এক বছর পর ১৩ পদ খালি রেখে যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এরপর ফেসবুকে দেওয়া এক বার্তায় সুমন বলেন, ‘কমিটিতে নাম থাকা কোন সুবিধা নয় বরং বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা ও যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস্ পরশ ভাইয়ের সম্মান পাহারার দায়িত্ব নেয়া। দায়িত্ব পালনে সবার সহযোগিতা ও দোয়া কামনা করছি।’

২০১ সদস্য বি‌শিষ্ট কেন্দ্রীয় ক‌মি‌টি ঘোষণা ক‌রেন যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশ এবং সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল।
গত বছরের ২৩ নভেম্বর তিন বছর মেয়াদে যুবলীগের সভাপতি হন শেখ ফজলে সামস পরশ। সাধারণ সম্পাদক হন যুবলীগের ঢাকা উত্তরের সাবেক সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

স্বাধীনতার পরপরই ১৯৭২ সালের ১১ নভেম্বর যুবকদের সংগঠিত করার লক্ষ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্দেশে যুবলীগ গঠন করেন তার ভাগ্নে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক শেখ ফজলুল হক মনি। ১৯৭৪ সালে যুবলীগের প্রথম কংগ্রেসে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। শেখ ফজলে সামস পরশ শেখ ফজলুল হক মনির ছেলে।