করোনাভাইরাস পরীক্ষায় জালিয়াতির ঘটনায় গ্রেপ্তার রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ ওরফে সাহেদ করিমের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) কার্ড ব্লক করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনের সিনিয়র সচিব মো. আলমগীর। সোমবার (২০ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ে কমিশন সভা শেষে সচিব সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। ইসি সচিব বলেন, এনআইডিতে সাহেদের নাম পরিবর্তন জালিয়াতির সঙ্গে নির্বাচন কমিশনের কারা কারা জড়িত রয়েছে তা খুঁজে বের করা হবে। জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, জড়িতদের খুঁজে বের করতে তদন্ত চলছে। প্রমাণ সাপেক্ষে সাহেদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সচিব আরও বলেন, মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এ মুহূর্তে সংসদীয় আসনে কোনো নির্বাচন করা হবে না। আগামী মাসে বসে আমরা আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেবো, কবে থেকে নির্বাচন করা যায় সে বিষয়ে। জানা যায়, রিজেন্ট হাসপাতালের চেয়ারম্যান মো. সাহেদ জাতীয় পরিচয়পত্রে নিজের নাম সংশোধন করেছিলেন। বছরখানেক আগে তিনি নিজের নাম বদল করে সাহেদ করিম থেকে মোহাম্মাদ সাহেদ হয়ে যান। এ তথ্য বের হওয়ার পর নির্বাচন কমিশনের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) অনুবিভাগ বিষয়টি তদন্ত করে দেখেছে।

করোনাভাইরাসের পরীক্ষা না করে ভুয়া রিপোর্ট দেওয়া, সরকারের কাছে বিল দেওয়ার পর আবার রোগীর কাছ থেকেও অর্থ নেওয়াসহ রিজেন্ট হাসপাতালে নানা অনিয়মের খবর সম্প্রতি প্রকাশ্য হয়েছে র‌্যাবের অভিযানের মধ্য দিয়ে। গত সপ্তাহে ওই অভিযানের পর রিজেন্টের দুটি হাসপাতাল বন্ধ করে দেয় র‌্যাব। ওই হাসপাতালের অনুমোদনও বাতিল করা হয়। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় গত বুধবার (১৫ জুলাই) সকালে সাতক্ষীরা দেবহাটা সীমান্ত এলাকা থেকে সাহেদকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব।