মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জনের কাছে এসব কিট এসে পৌঁছায় বলে জানা গেছে। শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালকের সাথে কথা বলে একথা জানান।

আন্তর্জাতিক রুটের বিমান চলাচল বন্ধ থাকায় চট্টগ্রামে বিদেশ থেকে এ কিট আসা বন্ধ ছিল। যার ফলে এখনো নতুন করে কাউকে হোম আর কোয়ারেনটাইনে পাঠানো হয়নি।

গত ২১ মার্চ চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ও করোনাভাইরাস প্রতিরোধ ও মোকাবিলায় গঠিত বিভাগীয় কমিটির এক বিজ্ঞপ্তিতে চট্টগ্রাম থেকে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ নির্ণয় করা হবে বলে জানিয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছিল, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার ফৌজদারহাটে ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকসাস ডিজিজেজ (বিআইটিআইডি) এর ব্যবস্থা করা হয়েছে। সন্দেহজনক রোগী সরাসরি বিআইটিআইডিতে না পাঠিয়ে আগে নমুনা সংগ্রহ করে সেখানে পাঠানোর কথা বলা হয়েছে ওই বিজ্ঞপ্তিতে।

ঘোষণার তিনদিন পর আজ মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) করোনাভাইরাস শনাক্তকারী এ কিট চট্টগ্রামে এসে পৌঁছেছে।