বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের ব্যাপক সংক্রমণের মধ্যে বাংলাদেশও এই ভাইরাসের শিকার হয়েছে।প্রথমবারের মতো তিনজনের শরীরে করোনার সংক্রমণ নিশ্চিত করেছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।

রোববার বিকেল সাড়ে ৩টায় রাজধানীর মহাখালীতে আইইডিসিআর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, আক্রান্তদের মধ্যে ১ জন নারী ও ২ জন পুরুষ। তিনজনই বাংলাদেশি নাগরিক। সম্প্রতি তাদের মধ্যে দুইজন ইতালি ভ্রমণ করেছিলেন। এবং তারা বাংলাদেশে ফেরত এসে নিজেদের বাড়িতে থাকার পর আরও একজন করোনাতে আক্রান্ত হন। আক্রান্তদের বয়স ২০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে।

তবে আইইডিসিআর বলছে, করোনা প্রতিরোধে সার্বিক প্রস্তুতি নেয়া আছে। ২১ জানুয়ারী থেকে বিমানবন্দর, সমুদ্র বন্দর ও সীমান্ত এলাকাসমুহে স্ক্রিনিং করা হচ্ছে। এরই মধ্যে ৪ লক্ষ ৯৪ হাজারর ৭০৫ জনকে স্ক্রিনিং করা হয়েছে। বেসরকারি হাসপাতালে আইসোলেশন নিশ্চিত করতে হবে।

যদিও দ্রুত করোনা ছড়িয়ে পরবে এমন আশঙ্কা করছে না আইইডিসিআর।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, করোনা প্রতিরোধে জনগণের অংশগ্রহণ প্রয়োজন। আতঙ্কিত না হয়ে করোনা প্রতিরোধে সচেতন থাকতে হবে। এবং কারো মাঝে লক্ষণ উপসর্গ থাকলে আইইডিসিআরে যোগাযোগের আহ্বান জানানো হয়েছে।

ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা আরও বলেছেন, তিনজন শনাক্ত হয়েছে বলে তাতে করে সারা বাংলাদেশে ছড়িয়ে পরার পরিস্থিতি তৈরি হয়নি। স্কুল কলেজ বন্ধেরও পরিস্থিতি হয়নি।

অবশ্য জনসমাবেশ এড়িয়ে চলে ঘরে থাকার আহ্বান জানান তিনি।