গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকের অনির্ধারিত আলোচনায় তিনি ওই দুই মন্ত্রীকে সতর্ক করেন। মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সদস্যের সঙ্গে আলাপকালে তথ্যটি জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বৈঠকের অনির্ধারিত আলোচনায় ভারত সফর নিয়ে কথা বলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন। দিল্লি সফরের বিভিন্ন অভিজ্ঞতা তুলে ধরার এক পর্যায়ে তিনি বাংলাদেশ ও ভারত সীমান্তে পিলার স্থাপনের বিষয়ে তার অভিমত তুলে ধরেন মন্ত্রিসভার বৈঠকে। বিষয়টি পছন্দ হয়নি প্রধানমন্ত্রীর। তিনি এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে থামিয়ে দিয়ে বেশ শক্তভাবেই বলেন, আপনার যেটা কাজ সেটা করেন। পিলার বসানোর চিন্তা আপনার করা লাগবে না।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গারা কবে নাগাদ তাদের নিজ দেশে ফিরে যাবে? রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে জানতে মন্ত্রিসভায় কথা তোলেন দুর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান। এ সময় প্রধানমন্ত্রী ডা. এনামের উদ্দেশে বলেন, রোহিঙ্গারা কবে ফিরবে এটা ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের দেখার বিষয় নয়। আপনার মন্ত্রণালয়ের কাজ রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সুবিধা দেওয়া আপনি সেটা অব্যাহত রাখেন।

বৈঠক সূত্রে আরও জানা গেছে, প্রয়াত জিয়াউর রহমানের নামে গড়ে তোলা ‘জিয়া স্মৃতি জাদুঘরকে’ চট্টগ্রামের মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘরে রূপান্তরের জন্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে প্রস্তাব করেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। জাদুঘরটির অবস্থান চট্টগ্রাম নগরীর কোতোয়ালি থানার কাজির দেউড়ি এলাকায়। চট্টগ্রাম-৯ (কোতোয়ালি-বাকলিয়া) আসনের সংসদ সদস্য হিসেবে নওফেলের এই প্রস্তাবে সমর্থন দিয়েছেন মন্ত্রিসভার প্রায় সব সদস্য। প্রস্তাবে নীতিগত সমর্থন এসেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকেও।