নিউজিল্যান্ডের নারী বিষয়ক মন্ত্রী তার প্রথম সন্তানের জন্ম দিতে নিজেই সাইকেল চালিয়ে হাসপাতালে গিয়ে হাজির হন।

গ্রিন পার্টির এই রাজনীতিক জুলি জেন্টার বলেছেন, ‘গাড়িতে যথেষ্ট জায়গা না থাকার কারণে’ তিনি সাইকেলে করেই হাসপাতালে চলে যান।

সাইকেল নিয়ে পার্টনার বা পুরুষ বন্ধুর সাথে তার এরকম একটি ছবি তিনি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন।

এর আগে গত জুন মাসে নিউজিল্যান্ডেরই প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডের্ন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করার সময় সন্তান প্রসব করেছিলেন।

সারা বিশ্বে তিনি দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী যিনি প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। এর আগে সরকার প্রধান থাকা কালে সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন পাকিস্তানের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টো।

বেনজির ভুট্টোর সেই কন্যা বাখতাওয়ার ভুট্টো জারদারি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে টুইট করে অভিনন্দন জানিয়েছিলেন।

আটত্রিশ বছর বয়সী জুলি জেন্টার, যিনি সহকারী পরিবহনমন্ত্রীও, সাইকেল চালানোর পক্ষে প্রচারণা চালিয়ে দেশটিতে সুপরিচিত হয়ে উঠেছেন।

“এই হলো ঘটনা। আপনারা আমাদের জন্যে দোয়া করবেন,” তার অনুসারীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো লিখেছেন, “আমি ও আমার পার্টনার সাইকেল চালিয়ে এসেছি কারণ সাপোর্ট ক্রুদের গাড়িতে যথেষ্ট জায়গা ছিল না। কিন্তু সাইকেল চালিয়ে আমার মনটা বেশ ভালোই হয়েছে।”

তিনি যে সাইকেলটি চালিয়েছেন সেটা ছিল ইলেকট্রিক বাইক। জুলি জেন্টার লিখেছেন, “বেশিরভাগ সময়ই ঢালু পথে এসেছি।” তারপর কৌতুক করে লিখেছে, “প্রসব বেদনা ওঠার জন্যে গত সপ্তাহে আমার আরো বেশি সাইকেল চালানো দরকার ছিল।”মার্কিন বংশোদ্ভূত জুলি জেন্টার তার সন্তানসম্ভবা হয়ে ওঠার কথাও ইন্সটাগ্রামে ঘোষণা দিয়ে জানিয়েছিলেন, “সাইকেলে এখন আরো একটা সিট লাগাতে হবে।”