বাতিল হচ্ছে ই-টোকেন পাঁচ বছরের ভিসা দেবে ভারত।

0
139

যারা নিয়মিত ভারতে যাতায়াত করেন তাদের জন্য সুখবর দিয়েছেন বাংলাদেশে দেশটির দূত হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা। তিনি জানিয়ছেন, স্বল্প মেয়াদী ভিসার বদলে পাঁচ বছর মেয়াদী ভিসা দেয়ার চিন্তা করছে তার দেশ। এরইমধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

শনিবার মাদারীপুর সার্কিট হাউসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা এ কথা বলেন। তিনি বলেন, কেবল দীর্ঘ মেয়াদি ভিসা নয়, ভিসা পাওয়ার ক্ষেত্রে ভোগান্তি যেনো কম হয় সে বিষয়টিও নিশ্চিত করবে তার দেশ। শিগগিরই বাতিল করা হবে ভোগান্তির ই-টোকেন পদ্ধতি।

প্রতিবছর ভারতে যত দেশ থেকে মানুষ ঘুরতে যায় সংখ্যার বিচারে তারমধ্যে তৃতীয় অবস্থানে বাংলাদেশ। কিন্তু বিপুল সংখ্যক ভ্রমণপ্রত্যাশী ভিসা সংগ্রহ করতে গিয়ে ভোগান্তির শিকার হয়। নানা সময় নানা চেষ্টা করেও এই ভোগান্তি কমানো যাচ্ছে না।

তবে হাইকমিশনার বলছেন, ভিসা জটিলতার অবসান হবে শিগগিরই। তিনি বলেন, এখন কোনো ব্যক্তি শুধু একা নয়, গোটা পরিবার নিয়ে যেকোনো কাজের জন্য ভারতে যেতে পারবে। এজন্য এক বছর মেয়াদী নয়, এখন থেকে পাঁচ বছর মেয়াদী ভিসার দেয়ার পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে বাগেরহাটের রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়েও কথা বলেন হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা। তিনি বলেন, রামপাল প্রকল্প ভারত-বাংলাদেশের একটি যৌথ উদ্যোগ। এটি বাস্তবায়নের জন্য ইতোমধ্যে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। প্রকল্পটি বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

সার্কিট হাউজে মনবিনিময় শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধণ শ্রিংলা দুই কোটি ৩৫ লাখ টাকা ব্যয়ে মাদারীপুরে সাতটি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক বাবর আরী মীর, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার জামান ভুইয়া, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান পাভেলুর রহমান শফিক খানসহ অন্যরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here